বড় সুখবর ব্যাংকের জন্য

0
165

চলতি বছর ২০২১ সালে মাত্র ২৫ শতাংশ পরিশোধ করে নিয়মিত দেখানো ঋণের বিপরীতেও পুরো সুদ আয় খাতে নিতে পারবে ব্যাংক।অর্থাৎ ২৫ শতাংশ আদায় করেও পুরো ঋণের সুদ দেখানোর সুযোগ পাবে।

করোনার মধ্যে ব্যাংকগুলোর আয় বেশি দেখানোর বিশেষ এই সুবিধা দিয়ে একটি সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

যদিও ২৫ শতাংশ আদায় করে নিয়মিত দেখানো ঋণের বিপরীতে অতিরিক্ত ২ শতাংশ প্রভিশন রাখতে হবে।

আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

সার্কুলারে পুরো ঋণ আদায় না করেই ব্যাংকগুলোর আয় বেশি দেখানোর এমন বিশেষ ছাড় দেওয়া হলো।

এর আগে গত ১ সেপ্টেম্বর ব্যাংকবহির্ভুত আর্থিক প্রতিষ্ঠানে শুধু যে পরিমাণ ঋণ আদায় হবে তার বিপরীতে সুদ আয় খাতে নেওয়ার নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। আর আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে চলতি বছর যে পরিমাণ ঋণ পরিশোধ করার কথা অন্তত ৫০ শতাংশ পরিশোধ করলে খেলাপি না করার নির্দেশনা রয়েছে।

চলতি বছরের শুরুতে বাংলাদেশ ব্যাংক সার্কুলার দিয়ে জানিয়েছিল এবার ঋণ পরিশোধে বিশেষ সুবিধা দেওয়া হবে না। তবে গ্রাহকের ওপর যেন ঋণ পরিশোধের বাড়তি চাপ তৈরি না হয় সে জন্য অনাদায়ী ঋণ শোধে বাড়তি সময় দেওয়া হয়।

এরপর বিভিন্ন পক্ষের চাপে গত ২৭ আগস্ট সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার একটি সার্কুলার জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। সেখানে বলা হয়, চলতি বছর কেউ ২৫ শতাংশ পরিশোধ করলে তাকে আর খেলাপি করা যাবে না। এই সুবিধা পাওয়া ঋণের ওপর আরোপিত সুদ আয় খাতে স্থানান্তর বিষয়ে পরে নির্দেশনা দেওয়ার কথা বলা হয়।

ওই নির্দেশনার আওতায় মঙ্গলবার সার্কুলারটি জারি করা হয়। সার্কুলারে বলা হয়েছে, সুবিধা পাওয়া ঋণের আদায় ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে ২০২১ সালে আরোপিত সুদ আয়খাতে স্থানান্তর করা যাবে। তবে গ্রাহকের প্রদেয় কিস্তির ২৫ শতাংশ ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে পরিশোধে ব্যর্থ হলে এ সুবিধা বাতিল করে যথানিয়মে শ্রেণিকরণ করতে হবে।

আর এ ধরনের সুবিধা পাওয়া ঋণের বিপরীতে বিদ্যমান নীতিমালার আওতায় যে সাধারণ প্রভিশন রাখা হয় তার অতিরিক্ত আরও ২ শতাংশ প্রভিশন রাখতে হবে। এই প্রভিশন বিশেষ ইতিমধ্যে সৃষ্ট ‘জেনারেল প্রভিশন কোভিড-১৯’ অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করতে হবে।

গতবছর ঢালাও সুবিধার আওতায় নিয়মিত দেখানো ঋণে অতিরিক্ত ১ শতাংশ প্রভিশন রাখার বাধ্যবাধকতা ছিলো। ওই সুবিধা পাওয়া যেসব ঋণ নগদ আদায়ের মাধ্যমে সম্পূর্ণ সমন্বয় হয়েছে তার বিপরীতে গতবছর সংরক্ষণ করা অতিরিক্ত ১ শতাংশ প্রভিশন আয়খাতে নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

ব্যাংকখাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মঙ্গলবারের সার্কুলারে চলতি বছর ২০২১ সালে ব্যাংকগুলোকে বাড়তি মুনাফা দেখানোর সুযোগ করে দেওয়া হল। এতে ব্যাংকগুলো আগের বছরের তুলনায় এবছর বেশি মুনাফা দেখানোর সুযোগ পাবে।তবে অতিরিক্ত প্রভিশন রাখার নির্দেশনা থাকায় চাপও থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here