আর্থিক প্রতিষ্ঠানকেও মূলধনের অংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকে জমা রাখতে হবে

0
87

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মূলধনের নির্দিষ্ট অংশ বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা রাখার বাধ্যবাধকতা রেখে ‘ব্যাংক আমানত সুরক্ষা আইন’ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

রবিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ব্যাংকে যে টাকা-পয়সা রাখা হতো, সেটির একটি সেফটি সিকিউরিটি ছিল। কিন্তু বিভিন্ন লিজিং কোম্পানি বা ফিনানশিয়াল প্রতিষ্ঠান যে ডিপোজিট করতো, সেখানে যারা ডিপোজিট করতো তাদের কোনো সিকিউরিটি ছিল না। সেজন্য ‘ব্যাংক আমানত বিমা আইন’ পরিবর্তন করে ‘ব্যাংক আমানত সুরক্ষা আইন’ করা হচ্ছে। ব্যাংক ছাড়াও যত আর্থিক প্রতিষ্ঠান আছে, তারা সবাই এই আইনের আওতায় আসবে। ডিপোজিট নিতে হলে ব্যাংকের মতো তাদেরও বাংলাদেশ ব্যাংকে সেফটি হিসেবে টাকা জমা রাখতে হবে।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আগে আইন ছিল ব্যাংক খোলার সময় বাংলাদেশ ব্যাংকে সেইফটি হিসেবে ডিপোজিট থাকে। কিন্তু লিজিং কোম্পানিগুলোর ছিল না। যুবক টাইপের যেসব কোম্পানি আছে, যারা টাকা-পয়সা লেনদেন করতো, তাদের কোনো সেফটি-সিকিউরিটি ছিল না। এই আইন সংশোধন করা হচ্ছে। যারা যে নামেই ফিনান্সিয়াল ট্যানজেকশন করবে তাকে অবশ্যই বাংলাদেশ ব্যাংকে রেজিস্ট্রার্ড হতে হবে এবং তাকে টোটাল পেইডআপ ক্যাপিটাল যেটা থাকবে, সেই ক্যাপিটালের একটি অংশ বাংলাদেশ ব্যাংকে ডিপোজিট থাকবে।

তিনি বলেন, লিজিং কোম্পানি উঠে গেলে গ্রাহকেরা দুই লাখ টাকা পর্যন্ত ওই ডিপোজিট থেকে পাবেন। ব্যাংক ছাড়া অন্য জায়গায় ডিপোজিট করতে সবাই সাবধান থাকবেন। আপনারা যে ডিপোজিট করবেন, কোনো কারণে উঠে গেলে সরকার আপনার জন্য দুই লাখ টাকার দায়িত্ব নিচ্ছে। বাকিটা ওদের কাছ থেকে রিকভার করা গেলে যাবে। কত টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা রাখতে হবে, তা বাংলাদেশ ব্যাংক নির্ধারণ করে দেবে।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here