কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশিত সুদহার নিয়ে চাপে ব্যাংক

0
403
HTML tutorial

ব্যাংকের শিল্পঋণের সুদ যখন ১৩-১৪ শতাংশ, তখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক সব ঋণের সুদ ৯ শতাংশ নির্ধারণ করে দেয়। আর মেয়াদি আমানতের সুদ যখন ১ শতাংশ পর্যন্ত নেমে যায়, তখন আমানতের সর্বনিম্ন সুদ ঠিক মূল্যস্ফীতির ওপরে রাখার নির্দেশ দিয়েছে। গত জুলাইয়ে গড় মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৫৪ শতাংশ।

এদিকে নির্দেশিত সুদকে ‘হুকুমের সুদ’ হিসেবে দেখছেন ব্যাংকাররা। কারণ, ব্যাংকগুলো এটা মানতে বাধ্য। আর এতে চাপে পড়েছে ব্যাংকগুলো। বেসরকারি খাতের ব্যাংকগুলোর পর্ষদ থেকে মুনাফার লক্ষ্য বেঁধে দেওয়া হয়। তাই নির্দেশিত সুদ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে ব্যাংকগুলোর সম্পদ ও দায় ব্যবস্থাপনা কঠিন হয়ে পড়ছে।

আর ঋণ ও আমানত—দুটোরই সুদ নির্ধারণ করে দেওয়ায় বাজারভিত্তিক সুদের প্রথা যেন হারিয়ে যেতে বসেছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা মেনে ব্যাংকগুলো ইতিমধ্যে তিন মাস এবং তার বেশি মেয়াদি আমানতের সুদহার বাড়িয়েছে। আমানতের সুদহার বাড়ানোর কারণে যেসব ঋণের সুদ ৯ শতাংশের নিচে ছিল, তা–ও বাড়াতে শুরু করেছে।

HTML tutorial

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here