আবারও ধস নেমেছে ক্রিপ্টো মুদ্রার বাজারে

0
123

আবারও ধস নেমেছে ক্রিপ্টো মুদ্রার বাজারে; দাম পড়েছে বাজারের শীর্ষ দুই ক্রিপ্টো মুদ্রা বিটকয়েন এবং ইথারের। তবে, বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন অন্যান্য ক্রিপ্টো মুদ্রায় বিনিয়োগকারীরা।

রয়টার্স জানিয়েছে, ১৮ মাস পর মঙ্গলবার সর্বোচ্চ দরপতনের নতুন রেকর্ড গড়েছে বিটকয়েন ও ইথার।  ৭.২ শতাংশ কমে ২০ হাজার ১৮৬ ডলারে নেমেছে বিটকয়েনের বাজারমূল্য।

গত শুক্রবারের তুলনায় ইথারের দাম ১০ শতাংশ কমে নেমে এসেছে এক হাজার ৭৫ ডলারে। ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসের পর ইথারের সর্বোচ্চ দরপতনের ঘটনা এটি।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মঙ্গলবারের বাজার ধসে বড় ভূমিকা রেখেছে ক্রিপ্টো মুদ্রা ঋণদাতা প্ল্যাটফর্ম ‘সেলসিয়াস নেটওয়ার্ক’। বাজার অস্থিতিশীলতার কারণে নিজস্ব প্ল্যাটফর্ম থেকে সকল উত্তোলন প্রক্রিয়া স্থগিত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রে মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে নিজস্ব ডেটা প্রকাশ এবং সেলসিয়াস নিজ প্ল্যাটফর্ম থেকে সকল উত্তোলন প্রক্রিয়া স্থগিত করায় শঙ্কিত বিনিয়োগকারীরা ডিজিটাল সম্পদগুলো বেচে দিচ্ছেন বলে উঠে এসেছে রয়টার্সের প্রতিবেদনে।

এ প্রসঙ্গে সিঙ্গাপুর ভিত্তিক বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান কিউসিপি ক্যাপিটাল বলেছে, “মুদ্রাস্ফীতির প্রভাব এবং সেলসিয়াস দেউলিয়া হয়ে গেলে তার সম্ভাব্য প্রভাব  নিয়ে বাজার আতঙ্কিত।”

সোমবার প্রকাশিত এক ব্লগ পোস্টে সেলসিয়াস নেটওয়ার্ক বলেছে, বাজার পরিস্থিতি কঠিন হয়ে দাঁড়ানোয় উত্তোলন এবং দুই অ্যাকাউন্টের মধ্যে তহবিল স্থানান্তর বন্ধ রাখা হয়েছে, যেন “সম্পদ রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে তারল্য ও  কার্যক্রম স্থিতিশীল রাখা যায়।”

রয়টার্স জানিয়েছে এক হাজার ১৮০ কোটি ডলারের সম্পদ রয়েছে নিউ জার্সিভিত্তিক সেলসিয়াস নেটওয়ার্কের। ক্রিপ্টো মালিকদের কাছ থেকে সুদের বিনিময়ে ক্রিপ্টো মুদ্রা জমা রাখতো প্ল্যাটফর্মটি। একই ক্রিপ্টো মুদ্রা সুদের বিনিময়ে আবার ধার দিয়ে মুনাফা কামায় সেলসিয়াস।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৫ জুন, ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here