বিমানবন্দরে এক ব্রোকারেজ হাউস মালিকের দেশত্যাগে পুলিশের বাধা

0
317

বিনিয়োগকারীদের টাকা ফেরত না দিয়ে দেশ থেকে পালানোর পথে এক ব্রোকারেজ হাউসের মালিককে বিমানবন্দরে আটকে দিয়েছে ইমিগ্রেশন পুলিশ। আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এই ঘটনা ঘটে।
সকালে টার্কিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে যুক্তরাজ্যে যাচ্ছিলেন বানকো সিকিউরিটিজের চেয়ারম্যান আবদুল মুহিত। পরে ইমিগ্রেশন পুলিশ তাঁর বিদেশযাত্রা আটকে দেয়।

বিনিয়োগকারীদের বিও (বেনিফিশিয়ারি ওনার্স) হিসাবের বিপুল অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় বর্তমানে ব্রোকারেজ হাউসটির লেনদেন স্থগিত রয়েছে। এ অবস্থায় ব্রোকারেজ হাউসটির মালিকেরা যাতে দেশ ছেড়ে যেতে না পারেন, সে জন্য পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির পক্ষ থেকে ইমিগ্রেশন পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন কার্যালয়ে আবেদন জানানো হয়েছিল। বিনিয়োগকারীদের অর্থ আত্মসাতের এ ঘটনায় ১৪ জুন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পক্ষ থেকে মতিঝিল থানায় আবদুল মুহিতসহ ব্রোকারেজ হাউসটির অন্য মালিকদেরও অভিযুক্ত করে অভিযোগ করা হয়েছিল। তারই সূত্র ধরে পুলিশের পক্ষ থেকে অভিযোগটি পাঠানো হয় দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক)। বর্তমানে বিষয়টি দুদকের তদন্তাধীন রয়েছে।

এ অবস্থায় আবদুল মুহিত সকালে দেশ ছেড়ে যুক্তরাজ্যে যাওয়ার জন্য বিমানবন্দরে যান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ইমিগ্রেশন পুলিশ তাঁকে আটকে দেয়।

জানতে চাইলে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশের কর্তব্যরত সদস্য সাইফুল সকাল ১০টায় প্রথম আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সাইফুল বলেন, ‘তাঁর (আবদুল মুহিত) দেশত্যাগের বিষয়ে আমাদের কাছে নিষেধাজ্ঞা ছিল। তাই সকালে টার্কিশ এয়ারওয়েজের একটি বিমানে তিনি লন্ডন যাওয়ার জন্য ইমিগ্রেশন পুলিশের মুখোমুখি হলে তাঁর বিদেশযাত্রা আটকে দেওয়া হয়। এরপর আমরা দুদক ও শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসিসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে বিষয়টি অবহিত করেছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here