ডিএসই’র সূচকের ৬৬০০ পয়েন্টের মাইলফলক

0
71

পুঁজিবাজার সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সূচকের নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস সোমবার সূচকের বড় উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে।

এদিন ডিএসইর ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সূচক ৬ হাজার ৬০০ পয়েন্টের নতুন মাইলফলক স্পর্শ করেছে। আগের সব রেকর্ড ভেঙে ধারাবাহিকভাবে নতুন রেকর্ড গড়েই চলেছে ডিএসইর সূচক। একইসঙ্গে এদিন টাকার পরিমাণেও লেনদেন বেড়েছে। এদিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রায় ১১ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে। ফলে এদিন ডিএসই’র সূচকের সঙ্গেও বাজার মূলধনে ফের নতুন রেকর্ড গড়েছে।

সোমবার উভয় শেয়ারবাজারে লেনদেনে অংশ নেওয়া অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে জানা গেছে, সোমবার ডিএসইর প্রধান ডিএসইএক্স সূচকটি ৩২.০৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৬ হাজার ৬২৮.১৪ পয়েন্টে। সূচকটি অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছায়।

এর আগে গত ৫ আগস্ট ডিএসইএক্স সূচকটি ৬০.২০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান নেয় ৬ হাজার ৫৯৬.০৭ পয়েন্টে। তবে ঠিক পরের কার্যদিবস সোমবার সেই রেকর্ড ভেঙে ফের নতুন রেকর্ড গড়লো ডিএসইএক্স। তার আগে গত ৩ আগস্ট ডিএসইএক্স সূচকটি ৫৪.৩০ পয়েন্ট বেড়ে পৌঁছে ৬ হাজার ৫৩৫ পয়েন্টে।

এর আগে ২ আগস্ট ডিএসইএক্স সূচক ৬ হাজার ৪৮১ পয়েন্টে অবস্থান করে রেকর্ড গড়ে। তার আগে গত ২৯ জুলাই ডিএসইএক্স সূচক ৬ হাজার ৪২৫ পয়েন্টে এবং ২৫ জুলাই ৬ হাজার ৪২৪ পয়েন্টে অবস্থান করে রেকর্ড গড়েছিল। ডিএসইএক্স বর্তমান সূচকটি চালুর পর ২০১৭ সালের ২৬ নভেম্বর ৬ হাজার ৩৩৬ পয়েন্টে সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছেছিল। পরে শেয়ারবাজারে দীর্ঘ মন্দার প্রভাবে সূচক আর এ অবস্থানে পৌঁছাতে পারেনি।

চলতি বছরের ৩০ মে ডিএসইএক্স সূচক বেড়ে ৬ হাজার পয়েন্ট অতিক্রম করে। সূচক এ অবস্থানে আসতে সময় লেগেছে ৩ বছর ২ মাস। তারপর থেকে ডিএসইর সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় একের পর এক নতুন রেকর্ড গড়েই চলেছে। গত ১৮ জুলাই সূচক ৬ হাজার ৩৬৫ পয়েন্টে পৌঁছায়। পরদিন ১৯ জুলাই ৬ হাজার ৪০৫ পয়েন্টে দাঁড়ায় সূচক।

২৫ জুলাই ৬ হাজার ৪২৪ পয়েন্টে, ২৯ জুলাই ৬ হাজার ৪২৫ পয়েন্টে অবস্থান করে একের পর এক নতুন রেকর্ড গড়েছে। এদিন একইভাবে ডিএসই-৩০ সূচক ৬.৭৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ৩৯২.৬২ পয়েন্টে, যা ডিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান। এর আগে গত ৫ আগস্ট ডিএসই- ৩০ সূচক ১৯.৪৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২ হাজার ৩৮৫.৮৯ পয়েন্টে।

এদিকে, ডিএসইর শরিয়াহ সূচক ১২.৭৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৪৫২.১১ পয়েন্টে, যা ডিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান। এর আগে গত ৫ আগস্ট শরিয়াহ সূচক ১৪.৭৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১ হাজার ৪৩৯.৩৪ পয়েন্টে।

দিন শেষে ডিএসইতে ৩৭৪টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৮টির, কমেছে ১৭২টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। ডিএসইতে ২ হাজার ৯১০ কোটি ৩৮ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে প্রায় ৪০০ কোটি টাকা বেশি।

সোমবার অপর শেয়ারবাজার সিএসইর প্রধান সিএসইএক্স সূচক ৮১.৩৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১১ হাজার ৫৯৪.৭০ পয়েন্টে। আর সার্বিক সিএএসপিআই সূচক ১৩৫.৪৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৯ হাজার ৩২৩.৮২ পয়েন্টে। এদিন, সিএসইতে ৩২১টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৫টির, কমেছে ১৪১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির। দিন শেষে সিএসইতে ১২৭ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ৪৭ কোটি টাকা বেশি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here