বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ১১ কোম্পানির প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে

0
293

জুলাই মাসের তুলনায় আগস্টে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ১১ কোম্পানির। এগুলো হলো- এসোসিয়েটেড অক্সিজেন, সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল, ডেসকো, যমুনা অয়েল, খুলনা পাওয়ার, লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেড, এমজেএল বাংলাদেশ, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, পদ্মা অয়েল, শাহ্জিবাজার পাওয়ার এবং তিতাস গ্যাস। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সিভিও পেট্রোকেমিক্যাল: কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের। এ কোম্পানিতে জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২১.৮৯ শতাংশ। আগস্ট মাসে ১.৫০ শতাংশ বেড়ে ২৩.৩৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.২৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.২০ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৩২.৫৭ শতাংশ। আগস্ট মাসে ১.৪৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩১.১০ শতাংশে।

এসোসিয়েটেড অক্সিজেন : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২৫.৮৬ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৬৬ শতাংশ বেড়ে ৯.৮৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৪৩.৪৩ শতাংশ আগস্ট মাসে ০.৬৬ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪২.৭৭ শতাংশ।

ডেসকো : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২৩.৩১ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৪২ শতাংশ বেড়ে ২৩.৭৩ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৯ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৪২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৮.৫৮ শতাংশে।

যমুনা অয়েল : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২৬.৮০ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৬৯ শতাংশ বেড়ে ২৭.৪৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.৪৯ শতাংশ আগস্ট মাসে ০.০২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.৪৭ শতাংশ। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৯.৭৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৬৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৯.০৬ শতাংশে।

খুলনা পাওয়ার (কেপিসিএল): জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৮.৪৫ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২৯ শতাংশ বেড়ে ৮.৭৪ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ২১.৩৫ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২৯ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২১.০৬ শতাংশে।

লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেড : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২১.২৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২৭ শতাংশ বেড়ে ২১.৫০ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.০০ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ০.০৩ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৪৩.০৮ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৩১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪২.৭৭ শতাংশে।

এমজেএল বাংলাদেশ : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২০.৪৬ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.১৮ শতাংশ বেড়ে ২০.৬৪ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.১৬ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.১৫ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৭.৮৫ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.১৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৭.৬৮ শতাংশ।

মেঘনা পেট্রোলিয়াম : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৩১.৯৫ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২০ শতাংশ বেড়ে ৩২.১৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.৩৫ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.১১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.২৪ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৯.০৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০৯ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৮.৯৪ শতাংশে।

পদ্মা অয়েল : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৩১.৩০ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০২ শতাংশ বেড়ে ৩১.৩২ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.৮৬ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ০.৮৭ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ১৫.৪৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৫.৪০ শতাংশে।

শাহ্জিবাজার পাওয়ার : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ১৮.৬৭ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২৩ শতাংশ বেড়ে ১৮.৯০ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ২১.০৪ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২০.৮১ শতাংশে।

তিতাস গ্যাস : জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ১৪.৯৫ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.৩০ শতাংশ বেড়ে ১৫.২৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে বিদেশী বিনিয়োগ ছিল ০.৬৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.০৬ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.৫৭ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ছিল ৯.৪২ শতাংশ। আগস্ট মাসে ০.২৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৯.১৮ শতাংশে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here