সাত খাতের বিনিয়োগকারীরা হতাশায়

0
102

মঙ্গলবার সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে (৬ অক্টোবর) শেয়ারবাজারে উত্থান হয়েছে। কিন্তু উত্থানের বাজারেও সাত খাতে বেশির ভাগ শেয়ার দরে পতন হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

খাতগুলো হলো- প্রকৌশল, বস্ত্র, বিবিধ, আর্থিক, ব্যাংক, বিমা, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাত।

বিমা খাত: বিমা খাতের ৫১টি কোম্পানির মধ্যে দর কমেছে ৪৭টির বা ৯২.১৫ শতাংশ কোম্পানির, দর বেড়েছে ৪টির বা ৭.৮৪ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি কমেছে গ্লোবাল ইন্সুরেন্সের ৬.৮৯ শতাংশ, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্সুরেন্সের ৬.৭১ শতাংশ, সিটি জেনারেল ইন্সুরেন্সের ৫.২০ শতাংশ, রিলায়েন্স ইন্সুরেন্সের ৫.০২ শতাংশ, ইস্টার্ন ইন্সুরেন্সের ৪.৬২ শতাংশ, প্রাইম লাইফের ৪.৪০ শতাংশ, কন্টিনেন্টাল ইন্সুরেন্সের ৪.২৯ শতাংশ, স্টানডার্ড ইন্সুরেন্সের ৪.২৩ শতাংশ, ইসলামি ইন্সুরেন্সের ৪.২৩ শতাংশ।

আর্থিক খাত: আর্থিক খাতে লেনদেন হওয়া ২২টি কোম্পানির মধ্যে দর কমেছে ১৯টির বা ৮৬.৩৬ শতাংশ কোম্পানির। দর বেড়েছে ২ টির বা ৯.০৯ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ১টির বা ৪.৫৫ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি কমেছে আসিবি’র ৪.৫২ শতাংশ, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্সের ৫.০৬ শতাংশ, প্রাইম ফাইন্যান্সের ৪.৯০ শতাংশ, প্রিমিয়ার লিজিংয়ের ৪.৫১ শতাংশ, বেলিজিংয়ের ৪.৩১ শতাংশ, আপিডিসি’র ৩.৩২ শতাংশ, ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের ৩.২৯ শতাংশ, মাইডাস ফাইন্যান্সের ৩.১১ শতাংশ।

খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাত: খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতে ২০টি কোম্পানির মধ্যে দর কমেছে ১৬টির বা ৮০ শতাংশ কোম্পানির, দর বেড়েছে ৪ টির বা ২০ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি কমেছে জিলবাংলা সুগারের ৭.৪১ শতাংশ, শ্যামপুর সুগারের ৭.২২ শতাংশ, বীচ হ্যাচারির ৪.৭০ শতাংশ, রহিমা ফুডের ৪.৪১ শতাংশ, ফাইন ফুডের ৪.১৮ শতাংশ।

প্রকৌশল খাত: প্রকৌশল খাতে ৪২টি কোম্পানির মধ্যে আজ দর কমেছে ২৩টির বা ৫৩.৭৬ শতাংশ কোম্পানির। দর বেড়েছে ১৮ টির বা ৪২.৪৬ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ১টির বা ২.৩৮ শতাংশ কোম্পানির। এখাতে দর বেশি কমেছে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের ৭.৯৬ শতাংশ, কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজের ৫.৪৩ শতাংশ, আজিজ পাইপসের ৪.৮৭ শতাংশ, ডমিনেজ স্টিলের ৪.৭৬ শতাংশ, বিডি অটোকারের ৪.৬৩ শতাংশ।

বস্ত্র খাত: বস্ত্র খাতে ৫৮টি কোম্পানির মধ্যে আজ দর কমেছে ৪০টি বা ৬৭.৮০ শতাংশ কোম্পানির। দর বেড়েছে ১৭টির বা ২৮.৮১ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ২টির বা ৩.৩৯ শতাংশ কোম্পানির। খাতটিতে দর বেশি কমেছে তমিজিউদ্দিন টেক্সটাইলের ৬.০৬ শতাংশ, রিজেন্ট টেক্সটাইলের ৪.৫১ শতাংশ, তাল্লু স্পিনিংয়ের ৪.১৩ শতাংশ, সোনারগাও টেক্সটাইলের ৪.০৩ শতাংশ, নূরানী ডাইংয়ের ৩.৩৭ শতাংশ, শাশা ডেনিমের ৩.২২ শতাংশ শতাংশ।

বিবিধ খাত: বিবিধ খাতের ১৪টি কোম্পানির মধ্যে দর কমেছে ১০টির বা ৭৬.৯২ শতাংশ কোম্পানির। দর বেড়েছে ৩ টির বা ২৩.০৮ শতাংশ কোম্পানির। এখাতে দর বেশি কমেছে আমান ফিডের ৮.৯৫ শতাংশ, আরামিট লিমিটেডের ২.৬৭ শতাংশ, ন্যাশনাল ফিড মিলের ৪.০৩ শতাংশ, জিকিউ বলপেনের ৩.০৬ শতাংশ, সাভার রিফ্যাক্টরিজের ৩.৫৮ শতাংশ, ইনজেক্স এগ্রোর ৩.৪৩ শতাংশ, সিনোবাংলার ২.২৬ শতাংশ, এসকে ট্রিমসের ১.৪৩ শতাংশ, উসমানিয়া গ্লাসের ১.১৮ বার্জারের ১.০৪ শতাংশ।

ব্যাংক খাত: ব্যাংক খাতে লেনদেন হওয়া ৩২টি কোম্পানির মধ্যে দর কমেছে ১৯টির বা ৬১.২৯ শতাংশ কোম্পানির, দর বেড়েছে ৬টির বা ১৯.৩৫ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ৬টির বা ১৯.৩৫ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি কমেছে এসবিএসি ব্যাংকের ৫.৮৫ শতাংশ, এনআরবিসি ব্যাংকের ৫.৬৫ শতাংশ, এনসিসি ব্যাংকের ৩.২৪ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here