পতনমুখী বাজারে চাঙ্গা প্রবণতায় সাত খাত

0
290

বৃহস্পতিবার সপ্তাহের পঞ্চম ও শেষ কার্যদিবসে (৭ অক্টোবর) পতন প্রবণতায় শেয়ারবাজারের লেননেন শেষ হয়েছে। এদিন শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। তবে পতনমুখী বাজারেও সাত খাতের শেয়ারে ছিল চাঙ্গা প্রবণতা। খাতগুলো হলো- বিমা, ব্যাংক, প্রকৌশল, বিবিধ, ওষুধ ও রসায়ন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ও আর্থিক। আমারস্টক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিমা খাত: বিমা খাতের ৫১টি কোম্পানির মধ্যে আজ দর বেড়েছে ৪৩টির বা ৮৬ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ৬টির বা ১২ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ১টির বা ২ শতাংশ কোম্পানির। খাতটিতে দর বেশি বেড়েছে সোনারবাংলা ইন্সুরেন্সের ৮.১১ শতাংশ, জনতা ইন্সুরেন্সের ৫.৪০ শতাংশ, দেশ জেনারেল ইন্সুরেন্সের ৫.২২ শতাংশ, ক্রীস্টাল ইন্সুরেন্সের ৫.০৪ শতাংশ, সিটি জেনারেল ইন্সুরেন্সের ৪.৭৭ শতাংশ, রিপাবলিক ইন্সুরেন্সের ৪.৬৫ শতাংশ, বাংলাদেশে ন্যাশনাল ইন্সুরেন্সের ৪.১৪ শতাংশ, কর্ণফুলি ইন্সুরেন্সের ৪.০৪ শতাংশ।

ব্যাংক খাত: ব্যাংক খাতের ৩২টি কোম্পানির মধ্যে আজ দর বেড়েছে ২৭টির বা ৮৪.৩৮ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ৩টির বা ৯.৩৮ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ২টির বা ৬.২৫ শতাংশ কোম্পানির। এখাতে দর বেশি বেড়েছে রুপালী ব্যাংকের ৬.১৫ শতাংশ, মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ৫.১৬ শতাংশ, সিটি ব্যাংকের ৪.৭৪ শতাংশ, আইএফআইসি ব্যাংকের ৪.৪৮ শতাংশ, যমুনা ব্যাংকের ৪.২০ শতাংশ, প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৩.৪৭ শতাংশ, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ৩.০৪ শতাংশ, ঢাকা ব্যাংকের ২.৮৩ শতাংশ।

প্রকৌশল খাত: প্রকৌশল খাতের ৪২টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৬টির বা ৬১.৯০ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ১৫ টির বা ৩৫.৭১ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ১টির বা ২.৩৮ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি বেড়েছে এসএস স্টিলের ৬.৮১ শতাংশ, দেশবন্ধু পলিমারের ৫.৯৬ শতাংশ, রংপুর ফাউন্ড্রির ৩.৮৭ শতাংশ, বিডি অটোকারের ২.৫০ শতাংশ, বিডি থাইয়ের ২.০১ শতাংশ।

বিবিধ খাত: বিবিধ খাতের ১৪টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৭টির বা ৫৩.৮৫ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ৬ টির বা ৪৬.১২ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি বেড়েছে খান ব্রাদার্স পিপি ব্যাগের ২.৮২ শতাংশ, সাভার রিফ্যাক্টরিজের ২.৭২ শতাংশ, ইনডেক্স এগ্রোর ২.৫৩ শতাংশ, জিকিউ বলপেনের ১.৮৩ শতাংশ, আমান ফিডের ১.২৫ শতাংশ।

ষুধ ও রসায়ন খাত: ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হওয়া ৩০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১৬টির বা ৫৩.৩৩ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ১৩ টির বা ৪৩.৩৩ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ১টির বা ৩.৩৩ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি বেড়েছে ইন্দোবাংলা ফার্মার ৯.৯৫ শতাংশ সেন্ট্রাল ফার্মার ৬.৪৫ শতাংশ, সিলভা ফার্মার ৪.৯৮ শতাংশ, সিলকো ফার্মার ৪.৬৭ শতাংশ, ফার কেমিক্যালের ৩.৩৫ শতাংশ, ফার্মা এইডের ৩.১৫ শতাংশ, এমবি ফার্মার ২.৮৬ শতাংশ।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত: এখাতের ২৩টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১২টির বা ৫২.১৭ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ১১ টির বা ৪৭.৮৩ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি বেড়েছে সামিট পাওয়ারের ৩.৫৪ শতাংশ, লুবরেফের ৩.২৯ শতাংশ, এসোসিয়েট অক্সিজেনের ৩.২৭ শতাংশ, খুলনা পাওয়ারের ৩.০২ শতাংশ, পাওয়ার গ্রিডের ১.৮৯ শতাংশ, ইন্ট্রাকো সিএনজির ১.৬৩ শতাংশ।

আর্থিক খাত: আর্থিক খাতে লেনদেন হওয়া ২২টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১১টির বা ৫০ শতাংশ কোম্পানির। দর কমেছে ৬টির বা ২৭.২৭ শতাংশ কোম্পানির। দর অপরিবর্তিত ছিল ৫টির বা ২২.৭৩ শতাংশ কোম্পানির। দর বেশি বেড়েছে মাইডাস ফাইন্যান্সের ১.৩৭ শতাংশ, বে-লিজিংয়ের ১.২৬ শতাংশ, ইউনাইটেড ফাই্যান্সের ১.২৪ শতাংশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here