বিদেশিদের আগ্রহ বেড়েছে ৫ ব্যাংকে

0
253

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৫ ব্যাংকের শেয়ারের প্রতি বিদেশিদের আগ্রহ বেড়েছে। যার কারণে গত এক মাসে ব্যাংক খাতে সর্বোচ্চ শেয়ার কিনেছে এই চার ব্যাংকের। এই ৫ ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে সিটি ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক এবং উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড। আমারস্টক থেকে এ তথ্য জানা যায়।

সিটি ব্যাংক লিমিটেড: গত এক মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাজার থেকে সিটি ব্যাংকের ০.১৩ শতাংশ শেয়ার কিনেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা বেড়েছে ০.১৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা ছিলো ৩.৪৯ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশিদের মালিকানা ০.১৩ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ৩.৬২ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৮ টাকা ২০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৬.৮৪ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৭.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে।
সর্বশেষ তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ২ টাকা ৯৭ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ২ টাকা ৮৯ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৩০ টাকা ১১ পয়সায়।

এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড: গত এক মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাজার থেকে এক্সিম ব্যাংকের ০.১৩ শতাংশ শেয়ার কিনেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা বেড়েছে ০.১৩ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা ছিলো ১.২৩ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশিদের মালিকানা ০.১৩ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ১.৩৬ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ টাকা ৬০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৭.০৮ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ৭.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ২.৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে।
সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ৮৯ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ১ টাকা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৫৫ পয়সায়।

প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড: গত এক মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাজার থেকে প্রিমিয়ার ব্যাংকের ০.৪১ শতাংশ শেয়ার কিনেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা বেড়েছে ০.৪১ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা ছিলো ১.৪৫ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশিদের মালিকানা ০.৪১ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ১.৮৬ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৪ টাকা ৪০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৪.৫৬ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১২.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৭.৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে।

সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ১ টাকা ৫৮ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ৯০ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৯১ পয়সায়।

সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড: গত এক মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাজার থেকে সাউথইস্ট ব্যাংকের ০.১২ শতাংশ শেয়ার কিনেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা বেড়েছে ০.১২ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা ছিলো ১.০৪ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশিদের মালিকানা ০.১২ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ১.১৬ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৬ টাকা ১০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৩.১৪ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ লভ্যাংশ দিয়েছে।

সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ২ টাকা ৫৬ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ১ টাকা ৫৯ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২৭ টাকা ৯৭ পয়সায়।

উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড: গত এক মাসে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাজার থেকে উত্তরা ব্যাংকের ০.২৪ শতাংশ শেয়ার কিনেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা বেড়েছে ০.২৪ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে বিদেশিদের মালিকানা ছিলো ০.৪৭ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশিদের মালিকানা ০.২৪ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ০.৭১ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৪ টাকা ৯০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৬.৯৬ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১২.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ১২.৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে।

সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ১ টাকা ৭৯ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ১ টাকা ৪৪ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৩১ টাকা ৬২ পয়সায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here