বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক মরগান স্ট্যানলি

0
93

বাংলাদেশর বিদ্যুৎ এবং জ্বালানি খাতের সম্ভাবনার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক মরগান স্ট্যানলি। বুধবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জে এর চেয়ারম্যানের সাথে বৈঠকে এ আগ্রহ প্রকাশ করেছে ব্যাংকটির একটি প্রতিনিধিদল।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবায়েত উল ইসলাম, কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ, বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মূখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম। বিপরীতে উপস্থিত ছিলেন বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাংক মরগান স্ট্যানলি এর প্রতিনিধি দলটি। বৈঠকে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ, জ্বালানি অন্যান্য খাতে অবকাঠামো প্রকল্প অর্থায়নের জন্য বাংলাদেশে স্থায়ী আয়ের সিকিউরিটিজ এবং শেয়ারবাজারের উপকরণে বিনিয়োগের বিষয়ে সন্তোষজনক আলোচনা করা হয়।

বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাংক মরগান স্ট্যানলি এর প্রতিনিধি দল বাংলাদেশর শেয়ারবাজারে আইপিওর প্রসেসিংয়ের বিষয়ে অবহিত হয়। বিদেশ থেকে কাষ্টডিউয়ানের মাধ্যমে কিভাবে নিরাপত্তার সাথে বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করা যায়, কিভাবে বাজার থেকে আবারও অর্থ কীভাবে সহজে উত্তোলন করা যায়, সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে বলে শেয়ারনিউজকে জানিয়েছেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মূখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাংক মরগান স্ট্যানলি এর প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে বিনিয়োগে বিশেষ করে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

মরগান স্ট্যানলি হচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাংক। এটি ১৯৯৩ সালে হেনরি মরগান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এর কর্মকান্ডের প্রধান প্রধান ক্ষেত্রগুলি হ’ল কর্পোরেট সিকিওরিটি, সম্পদ পরিচালন, গ্রাহক, ডিসকভারি কার্ড বিভাগের মাধ্যমে কাজ করে। অফিস এবং সহায়ক সংস্থাগুলি রাশিয়ান ফেডারেশনসহ বিশ্বের ৪২টি দেশে প্রতিনিধিত্ব করছে ব্যাংকটি।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের শেয়ারবাজারের ব্যাপ্তি বাড়ানো এবং বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে যুক্তরাজ্যে রোড শো করতে গেছেন শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)-এর কর্মকর্তাবৃন্দ। রোড শোর আগের দিন বিএসইসির কর্মকর্তাবৃন্দ প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে বিশ্বের বৃহত্তম ব্যাংক মরগান স্ট্যানলি এর প্রতিনিধি দলের সাথে বিনিয়োগ বিষয়ে বৈঠক করেন।

এ রোড শো বিএসইসি’র আন্তর্জাতিক অঙ্গনে চতুর্থতম আয়োজন। লন্ডনে বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) ও ম্যানচেস্টারে রোবববার (৮ নভেম্বর) এ দুই দিনব্যাপী রোড শো অনুষ্ঠিত হবে। যুক্তরাজ্যের রোড শো’র উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষের (বেপজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. নজরুল ইসলাম এবং যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি সাইদা মুনা তাসনিম। এছাড়া, রোড শোতে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির ও এনবিআরের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম অংশগ্রহণ করবেন বলে জানা গেছে।

রোড শোতে লন্ডনের বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি বিনিয়োগকারী এবং স্টেক হোল্ডাররা অংশ নেবেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে আগত অতিথিরা বিভিন্ন সেক্টর নিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন। সেখানে বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুযোগ-সুবিধা, বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড, সরকারের গৃহীত বিনিয়োগবান্ধব নীতি, শেয়ারবাজার ও সার্বিক অর্থনীতির পরিস্থিতি এবং এফডিআই’র বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সহযোগিতা আমন্ত্রিত অতিথিদের সামনে তুলে ধরা হবে।

এর আগে প্রথম দফায় দুবাইতে, দ্বিতীয় দফায় যুক্তরাষ্ট্রে, তৃতীয় দফায় সুইজারল্যান্ডে সাফলতার সঙ্গে রোড শো সম্পন্ন করেছে বিএসইসি। আর চতুর্থ দফায় যুক্তরাজ্যে রোড সফলভাবে সম্পন্নের পর কাতার, সিঙ্গাপুর, জার্মানি, কানাডা, রাশিয়া, ইতালি, হংকং, জাপান, মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে বিএসইসি ধারাবাহিকভাবে রোড শো আয়োজন করার পরিকল্পনা নিয়েছে বলে জানা গেছে। লন্ডন ও ম্যানচেস্টারে রোড শোটি স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় এবং বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here