আগামীর শেয়ারবাজার হবে অনেক সুন্দর: বিএসইসি চেয়ারম্যান

0
451

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম বলেছেন, আগামীর শেয়ারবাজারের অনেক সুন্দর হবে। ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ) এর বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড প্রদান ও ফ্যামিলি ডে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সিএমজেএফ সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল। সিএমজেএফ সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- পদ্মা ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও নিউজবাংলা টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি চৌধুরী নাফিজ সারাফাত, ই-জেনারেশনের চেয়ারম্যান শামীম আহসান। অনুষ্ঠানে বিএসইসি কমিশনারসহ শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা ‍উপস্থিত ছিলেন।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘বন্ড মার্কেট নিয়ে আমরা কাজ করছি। এখানে বেশ কিছু আইনের পরিবর্তনের বিষয় আসবে। যেন বন্ড নিয়ে আরও বড় পরিসরে কাজ করা যায়। ছোট বিষয়গুলো সমাধানের পথে। যেহেতু আইন পরিবর্তনের বিষয় আছে, সেটি একদিন বা এক ঘণ্টায় করা যায় না। তাই আমাদের কিছু সময় দিতে হবে। সব মিলিয়ে আমরা শেয়ারবাজারের সুন্দর ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি।

‘আমাদের এই নতুন বাংলাদেশে অনেক কিছু করার সুযোগ আছে উল্লেখ করে শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম বলেন, আবার বাধা ও সমস্যা আছে। সবচেয়ে বড় সমস্যা মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছানো। পুঁজিবাজারে ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের দুটি প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। সে সঙ্গে ইক্যুইটিভিত্তিক ক্যাপিটাল মার্কেটে নতুন নতুন প্রোডাক্ট দিয়ে বড় করার চেষ্টা করছি।’

শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম আরও বলেন, ‘আমাদের অনেকেই কমিউনিটি মার্কেট নিয়ে কাজ করতে চান। শেয়ার কেনা-বেচার ক্ষেত্রে যে লিমিট আছে সেটি বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন ব্রোকারেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতিসহ অনেকে। আমাদের কাছে শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা আরও অনেক ধরনের সুবিধা চান। সবকিছুই আমরা অল্প কয়েক মাস পরই সিসিবিএল এর মাধ্যমে দিতে পারব। এর মাধ্যমে অনেক ধরনের সুযোগ সুবিধা সেকেন্ডারি মার্কেটে যোগ করা সম্ভব হবে।’

চৌধুরী নাফিজ সরাফাত বলেন, ‘অর্ধশত বছর আগে স্বাধীন সার্বভৌম দেশ হিসেবে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ। যার অন্যতম প্রধান লক্ষ্য ছিল অর্থনৈতিক মুক্তির মাধ্যমে বিশ্বের সামনে উন্নত জাতি হিসেবে মাথা উচু করে দাঁড়ানো। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে দ্রুত গতিতে সেই লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।

‘আমি বিশ্বাস করি এই অগ্রযাত্রাকে আরও গতিশীল করতে দরকার একটি শক্তিশালী শেয়ারবাজার। এ জন্য বাজার ব্যবস্থাপনাকে আরও উন্নত করার বিকল্প নেই। এই কাজে সরকার, নিয়ন্ত্রক সংস্থার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে সাংবাদিকদের। তারা সমস্যা চিহ্নিত করে দিলে সরকার বা নিয়ন্ত্রক সংস্থার পক্ষে তা সমাধানে উদ্যোগ নিতে সহজ হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘গণমাধ্যমের প্রতি ভালো লাগা থেকে আমরা সম্প্রতি গণমাধ্যমে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরই মধ্যে নিউজবাংলা টোয়েন্টিফোর ডটকম নামে নিউজ পোর্টাল চালু করেছি। পেশাদার সাংবাদিকতার মাধ্যমে মাত্র এক বছরের মধ্যে এটি পাঠক প্রিয়তা অর্জন করেছে। পোর্টালে শেয়ারবাজার বিষয়ক রিপোর্ট বৈচিত্র্য এনেছে। এ ছাড়া শিগগিরই দৈনিক বাংলা প্রকাশের পরিকল্পনা আছে। উদ্যোক্তা হিসেবে আমরা চাই এ পত্রিকাটি হবে জনগণের মুখপাত্র। বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার পথিকৃৎ।’

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে সিএমজেএফ সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল বলেন, ‘বিএসইসি নতুন নেতৃত্বে কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে শেয়ারবাজারে গতিশীলতা আনার চেষ্টা করছে। এ কাজ পূর্ণতা পাবে গণমাধ্যমের সহযোগিতায়। শেয়ারবাজারের আরও তথ্যবহুল সংবাদ প্রকাশ পেলে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়বে।’

অনুষ্ঠানে তিন ক্যাটাগরিতে তিনজন সাংবাদিককে পুরস্কার দেয়া হয়। যমুনা টেলিভিশনের আলমগীর হোসেন, ডেইলি স্টারের আহসান হাবিব রাসেল ও জাগো নিউজের সাঈদ শিপন সম্মানিত হন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here