পুঁজিবাজারে আবার পতন

0
42
7066

পুঁজিবাজারে স্থায়ীত্ব হচ্ছে না উত্থান ধারা। টানা পতনের পর এক কিংবা দুই কার্যদিবস উত্থান হতে না হতেই আবার পতনের দিকে চলে যাচ্ছ পুঁজিবাজার। এমনই ঘটনা ঘটেছে চলতি সপ্তাহেও। শেষ দুই কার্যদিবস উত্থান হলেও আগের তিন কার্যদিবস ছিল পতনে আবদ্ধ। কিন্তু শেষ দুই কার্যদিবস উত্থান হলেও বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) আবার পতন হয়েছে শেয়ারবাজারে। এদিন পুঁজিবাজারের সব সূচক কমেছে। সূচকের সাথে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেনও কমেছে।

জানা গেছে, আজ প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১১.৪৮ পয়েন্ট বা ০.১৭ শতাংশ কমে ছয় হাজার ৭৩১.১৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৪.১৯ পয়েন্ট বা ০.২৯ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১.৪৬ পয়েন্ট বা ০.০৫ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৪২৭.২৭ পয়েন্ট এবং দুই হাজার ৫২২.৩১ পয়েন্টে।

ডিএসইতে আজ ৭৩৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ১৩৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা কম। আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিল ৮৭২ কোটি ৬০ লাখ টাকার।

ডিএসইতে আজ ৩৭৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩৩টির বা ৩৫.২৮ শতাংশ শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। দর কমেছে ১৯৬টির বা ৫১.৯৯ শতাংশের এবং ৪৮টি বা ১২.৭৩ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর পাুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ২২.২৫ পয়েন্ট বা ০.১১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৯ হাজার ৬১৭.১১ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৯৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ১৩৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির দর। আজ সিএসইতে ৫৩ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here