৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন জেএমআই সিরিঞ্জের

0
56
7855

২০২০-২১ অর্থবছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন দিয়েছে জেএমআই সিরিঞ্জেস অ্যান্ড মেডিকেল ডিভাইসেস লিমিটেড। টাকার অঙ্কে যা ৬ কোটি ৬৩ লাখ। শেয়ারবাজারে তালিকাভূক্ত চিকিৎসা সরঞ্জাম খাতের প্রতিষ্ঠানটির ২২তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এ অনুমোদন দেয় প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদ।

বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয় জেএমআই সিরিঞ্জেস অ্যান্ড মেডিকেল ডিভাইসেস লিমিটেডের বার্ষিক সাধারণ সভা। এসময় নগদ লভ্যাংশ অনুমোদনসহ মোট আটটি আলোচ্যসূচি (এজেন্ডা) অনুমোদিত হয়।

এসময় জানানো হয়, ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ টাকা শূন্য ৩ পয়সা। আগের অর্থবছরে যা ছিলো ৪ টাকা ৩৫ পয়সা। গত ৩০ জুন, ২০২১ তারিখে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ১২২ টাকা ৭০ পয়সা।

২০১৬-১৭ অর্থবছর থেকে প্রতিবছর ৩০ শতাংশ করে নগদ লভ্যাংশ দিয়ে আসছে জেএমআই সিরিঞ্জেস অ্যান্ড মেডিকেল ডিভাইসেস লিমিটেড। সভায় প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান জাবেদ ইকবাল পাঠান বলেন, টানা পাঁচ বছর ধরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ৩০ শতাংশ করে নগদ লভ্যাংশ দিয়ে আসছি আমরা। আগামী বছরগুলোতে আরও বড় লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। জেএমআই সিরিঞ্জ পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত মোট ৪১ কোটি ৫৩ লাখ টাকা লভ্যাংশ হিসেবে বিনিয়োগকারীদের প্রদান করেছে বলেও জানান তিনি।

সভা শেষে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে জেএমআই সিরিঞ্জেস অ্যান্ড মেডিক্যাল ডিভাইসেস লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমরা আমাদের কারখানায় উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানোয় বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি, কার্যক্রম চলছে। এর ফলে, সামনের বছর থেকে আমাদের নিয়মিত উৎপানের সঙ্গে প্রতি মাসে আরও ৯০ লাখ সিরিঞ্জ যোগ হবে।

দেশের চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি বিদেশের চাহিদা মাথায় নিয়েই আমরা উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরইমধ্যে আগামী অর্থবছরের জন্য নেপাল, ইউনিসেফসহ বিভিন্ন দেশ ও প্রতিষ্ঠান থেকে সিরিঞ্জ ক্রয়ের আগ্রহপত্র-ক্রয়াদেশ পেতে শুরু করেছি আমরা।’

এজিএমে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেএমআই সিরিঞ্জেস অ্যান্ড মেডিক্যাল ডিভাইসেস লিমিটেডের স্বতন্ত্র পরিচালক আব্দুল হক, এটিএম সেরাজুল সালেকিন চৌধুরী এবং মুস্তাফিজুর রহমান, জাপানের নিপ্রো কর্পোরেশন মনোনীত পরিচালক কাটসুহিকো ফুজি এবং হিসাও নাকামোরি, পরিচালক (অর্থ) হিরোশি সাইতো, জেএমআই গ্রুপের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম, জেএমআই সিরিঞ্জেস অ্যান্ড মেডিক্যাল ডিভাইসেস লিমিটেডের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা রনজিৎ চক্রবর্তী এবং কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ তারেক হোসেন খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here