ব্যাংক-পুঁজিবাজার খোলা না বন্ধ সিদ্ধান্ত রোববার

0
186

করোনার ভারতীয় ধরনে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় দেশজুড়ে সোমবার থেকে ৭ দিনের লকডাউন দেওয়া হয়েছে। এ অবস্থায় ব্যাংক খোলা থাকবে না বন্ধ থাকবে আগামীকাল রোববার সিদ্ধান্ত জানা যাবে।

শনিবার (২৬ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম সানবিডিকে বলেন, প্রজ্ঞাপন জারি হওয়ার পর ব্যাংকের বিষয়ে রোববার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম জানিয়েছেন, কঠোর লকডাউনে ব্যাংক খোলা থাকলে পুঁজিবাজারের লেনদেন চলবে। সেক্ষেত্রে ব্যাংক লেনদেনের সময়সূচী অনুযায়ী পুঁজিবাজারেও সীমিত সময়ে লেনদেন চালু থাকবে।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, করোনায় লকডাউনে বিশ্বের কোনো দেশেই পুঁজিবাজারে লেনদেন বন্ধ থাকেনি। গতবছর বিশেষ পরিস্থিতির কারণে এখানে শেয়ারবাজারে লেনদেন বন্ধ ছিল। তবে নতুন করে গতবছরের মতো শেয়ারবাজারে লেনদেন বন্ধ থাকার আশঙ্কা নেই বলে জানান তিনি।

এর আগে করোনা সংক্রমণের কারণে সীমিত আকারে ব্যাংক খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। পরবর্তীতে সংক্রমণ কমতে থাকায় বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলার সিদ্ধান্ত হয়। তবে এবারের কঠোর লকডাউনে ব্যাংক সীমিত আকারে খোলা থাকবে না বন্ধ হবে সেই বিষয়ে রোববার জানা যাবে।

এদিকে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) জানিয়েছে, ঘোষিত এ লকডাউনে তৈরি পোশাক কারখানাগুলো লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সোমবার (২৮ জুন) থেকে সারাদেশে ৭ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। শুক্রবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় তথ্য অধিদপ্তরের প্রধান তথ্য অফিসার সুরথ কুমার সরকারের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, লকডাউন চলাকালে জরুরি সেবা ব্যতীত সব সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া জরুরি পণ্যবাহী ব্যতীত সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। অ্যাম্বুলেন্স ও চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে শুধু যানবাহন চলাচল করতে পারবে। জরুরি কারণ ছাড়া বাইরে কেউ বের হতে পারবে না।

তবে গণমাধ্যম এর আওতামুক্ত থাকবে। এ বিষয়ে বিস্তারিত আদেশ দিয়ে শনিবার (২৬ জুন) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here