যত বাধাবিপত্তিই থাকুক সামনে আরো নতুন নতুন কাজ করব: বিএসইসি চেয়্যারম্যান

0
28

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়্যারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আজকে আমার সুকুক নিয়ে একটা কাজ করলাম, উদ্বোধন করলাম এবং আজকে থেকে এর ট্রেড শুরু হলো। যত বাধাবিপত্তিই থাকুক সামনে আরো নতুন নতুন কাজ করব। আমাদের সামনে ব্লু বন্ড, গ্রীণ বন্ড অনেকগুলো চলে আসছে, আমাদের ডেরিভেটিভস নিয়ে কিছু কাজ করছি সেটা চলে আসবে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে ডিএসই মাল্টিপারপাস হলে অনুষ্ঠিত বেক্সিমকো গ্রীন সুকুক বন্ডের লেনদেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএসইসি চেয়্যারম্যান বলেন, আস্তে আস্তে আমাদের অর্থনীতিকে যে স্বপ্ন নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি সেটা বাস্তবায়িত হবে। আমাদের সরকার, মন্ত্রণালয় এবং ব্যবসায়ী যারা এখন খুব সাহসিকতার সাথে এগিয়ে যাচ্ছে। এখন আমাদের জনগণ, জনসাধারণ এবং সকলের কাছে একটাই চাওয়া এখন আমাদের একটা স্ট্যাবিলিটি দরকার, বাকিটা পাবলিক-প্রাইভেট সেক্টরই এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, বেক্সিমকো গ্রুপ বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া প্রথম প্রাইভেট কোম্পানি। যারা স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে প্রাইভেট কোম্পানি হিসেবে এক্সপোর্ট-ইমপোর্টের লাইসেন্স পেয়েছে। তারপর থেকেই ওনাদের যোগ্য যারা নেতৃত্বে আছেন তারা সবাই এই কোম্পানিটিকে একটি কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমাদের সামনে তুলে ধরেছেন। কর্পোরেট কালচার বলতে আমরা যে জিনিসটা মিন করি এটা কিন্তু ওনারা ৭০ দশকে শুরু করেছেন। যেটা আজকেও আমরা অনেক জায়গায় দেখতে পাই না। যদিও সে কালচারটা আমাদের খুব দরকার।

বিএসইসি চেয়্যারম্যান আরো বলেন, যখন কেউ এই মার্কেটকে চিনত না তখন বেক্সিমকো গ্রুপ এই মার্কেটে এসে অনেক নতুন নতুন ইনোভেটিভ এনে আমাদের দেখিয়েছেন। এবং আজকে এই গ্রুপটিই প্রথম সাহসিকতার সাথে নতুন আরেকটি প্রোডাক্ট নিয়ে আসল। আমাদের আজকের প্রধান অতিথি (সালমান এফ রহমান) একজন খুবই ইনোভেটিভ এবং সাহসি ব্যবসায়ী। তিনি নতুন নতুন ইনোভেটিভ প্রোডাক্ট নিয়ে আসতে খুবই পছন্দ করেন। খালি ক্যাপিটাল মার্কেট নয় তিনি অন্যান্য আরো অনেক কিছু করার চেষ্টা করছেন যেগুলো বাংলাদেশে প্রথম আসতে যাচ্ছে।

আমাদের এখন যে জিনিসটি প্রয়োজন সেটা হচ্ছে বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে ট্রিপিক্যাল ট্রেডিশনাল যা আছে সেগুলো নিয়ে থাকলে আর হবে না উল্লেখ করে শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আমরা বার বার যে কথাটা বলছি আউট অব দ্যা বক্সে যেতে হবে, ইনোভেটিভ হতে হবে এবং অন্যের আবিষ্কার, অন্যের কালচার, অন্যের রিসার্চকে আর এখন হবে না, আমাদের নিজস্ব কাজ নিজেদেরই করতে হবে, নিজেরাই ইনোভেটিভ হয়ে নিজেরাই দেশ, মার্কেট এবং সব কিছুই নিজেদেরই তৈরি করার মতো শক্তি সঞ্চয় করতে হবে।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৩ জানুয়ারি, ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here