জরিমানার কবলে সাউথইস্ট ব্যাংক

0
69

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের কোম্পানি সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড নিয়ম ভেঙে ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্সের শেয়ার কিনে এখন জরিমানার কবলে পড়েছে।

ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্সে সীমার অতিরিক্ত বিনিয়োগ করায় গত ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকটি থেকে ২১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এখনো প্রতিদিন ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা গুনতে হচ্ছে। ব্যাংকটির বিনিয়োগ যত দিন সীমার নিচে না আসবে, তত দিন এই জরিমানা গুনতে হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কোম্পানি আইন অনুযায়ী, কোনো কোম্পানির পরিশোধিত মূলধনের ১০ শতাংশের বেশি শেয়ার কোনো ব্যাংক ধারণ করতে পারবে না। তবে ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্সের প্রায় ২৩ লাখ শেয়ার রয়েছে সাউথইস্ট ব্যাংকের কাছে, যা ওই কোম্পানির পরিশোধিত মূলধনের প্রায় ১৩ শতাংশ।

এখন তা ১০ শতাংশে নামিয়ে আনতে প্রতিদিন শেয়ার বিক্রি করছে ব্যাংকটি। কিন্তু পর্যাপ্ত ক্রেতা না থাকায় শেয়ার বিক্রি করতে গিয়েও বেগ পেতে হচ্ছে ব্যাংকটিকে।

সাউথইস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম কামাল হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘ভালো কোম্পানি দেখে ওই বিমার শেয়ার বেশি কেনা হয়েছিল। অন্য কোনো উদ্দেশ্যে নয়। এখন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মেনে আমরা শেয়ার ছেড়ে দিতে চাচ্ছি। কিন্তু বিক্রি করতে গিয়ে ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না। এই জন্য বিক্রি করতে সময় লাগছে। আমাদের চেষ্টার কমতি নেই। আবার একবারে সব শেয়ার বিক্রির আদেশ দিলে বিভিন্ন মহল থেকে চাপ আসছে।’

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের তথ্য অনুযায়ী, গত রোববার ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্সের ২ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার, সোমবার ৪ হাজার ৩১৬টি, মঙ্গলবার ৬ হাজার ৬৯৭টি ও গতকাল বুধবার ৩ হাজার ১৭৮টি শেয়ারের হাতবদল হয়। ফলে ব্যাংকটি চাইলেও একেবারে শেয়ার ছেড়ে সীমায় আনতে পারছে না।

গত বছরের বিভিন্ন সময় সীমা অতিক্রম করে দফায় দফায় ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানির শেয়ার কেনে সাউথইস্ট ব্যাংক। সাউথইস্ট ব্যাংকের চেয়ারম্যান আলমগীর কবির ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্সেরও উপদেষ্টা।

অন্যদিকে, সাউথইস্ট ব্যাংকের সাবেক উপদেষ্টা জাকির আহমেদ খান ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্সের স্বতন্ত্র পরিচালক।

ব্যাংক কোম্পানি আইনের ২৬ ধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যাংক তার আদায় করা মূলধন, শেয়ার প্রিমিয়াম, সংবিধিবদ্ধ সঞ্চিতি ও রিটেইন আর্নিংয়ের ৫ শতাংশের বেশি অন্য কোম্পানির শেয়ার ধারণ করতে পারবে না, যার হিসাব হবে বাজারমূল্যে। আরও বলা হয়েছে, কোনো কোম্পানির পরিশোধিত মূলধনের ১০ শতাংশের বেশি শেয়ার কোনো ব্যাংক ধারণ করতে পারবে না।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here