বিনিয়োগকারীদের পোর্টফোলিও বেড়েছে ৭ হাজার কোটি টাকা

0
55

গত সপ্তাহে (০৯-১৩ জানুয়ারি) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্যসূচক ডিএসইএক্স নামমাত্র বেড়েছে। যে সময় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দর কমেছে। তারপরেও ওই সপ্তাহটিতে বিনিয়োগকারীদের পোর্টফোলিওতে প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা বেড়েছে।

জানা গেছে, বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৮৪টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৬টির বা ৩৮.০২ শতাংশের, কমেছে ২১৯টির বা ৫৭.০৩ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির বা ৪.৯৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

এদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৯.৭৮ পয়েন্ট বা ০.৪৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭০১৭.২৩ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২৯.৫৬ পয়েন্ট বা ২.০১ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৩.২১ পয়েন্ট বা ০.৫১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১৫০১.৭১ পয়েন্টে এবং ২৬১৬.৩০ পয়েন্টে।

এই অবস্থার মধ্যেও গত সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের পোর্টফোলিওতে যোগ হয়েছে ৬ হাজার ৯৬৫ কোটি ২ লাখ ২৮ হাজার ৭৪৭ টাকা। দেখা গেছে, সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ৫৮ হাজার ৩১ কোটি ৯৪ লাখ ২৫ হাজার ৪৫৯ টাকায়। যা সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৬৪ হাজার ৯৯৬ কোটি ৯৬ লাখ ৫৪ হাজার ২০৬ টাকায়।

এই মূলধন বৃদ্ধির পেছনে সবচেয়ে বড় কারন হিসেবে রয়েছে বেক্সিমকোর সুকুকের তালিকাভুক্তি। এই বন্ডটির তালিকাভুক্তিতে ৩ হাজার কোটি টাকার বাজার মূলধন বেড়েছে। এছাড়া অধিকাংশ কোম্পানির দর পতনের পরেও বাজার মূলধন বৃদ্ধির পেছনে কারন হিসেবে রয়েছে বড় পরিশোধিত মূলধনের কোম্পানির দর বৃদ্ধি।

বিদায়ী সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৭ হাজার ৮৩২ কোটি ৪৪ লাখ ১২৮ টাকার লেনদেন হয়েছে। যার পরিমাণ আগের সপ্তাহে ছিল ৬ হাজার ৪৮৮ কোটি ১৫ লাখ ৬২ হাজার ৬৮৯ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ১ হাজার ৩৪৪ কোটি ২৮ লাখ ৯৩ হাজার ৪৩৯ টাকা বা ২০.৭২ শতাংশ বেড়েছে।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২৬২ কোটি ৭১ লাখ ৬৩ হাজার ২৮৬ টাকার।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫০.৬৯ পয়েন্ট বা ০.২৫ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০৫৪৫.৯১ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসই-৩০ সূচক ২২৯.২৫ পয়েন্ট বা ১.৬১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৪৬১.৩১ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৪৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটে লেনদেনে হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১২৪টির বা ৩৬.১৫ শতাংশের দর বেড়েছে, ২০৩টির বা ৫৯.১৮ শতাংশের দর কমেছে এবং ১৬টির বা ৪.৬৬ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৫ জানুয়ারি, ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here