প্রাতিষ্ঠানিক বড় বিনিয়োগ জেড ক্যাটাগরীর ছয় কোম্পানিতে

0
367

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৩১টি জেড ক্যাটাগরীর কোম্পানির মধ্যে ৬টি কোম্পানিতে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিনয়োগকারীদের। এই ছয় কোম্পানির মধ্যে সর্বোচ্চ ৪১ শতাংশ থেকে সর্বনিন্ম ২০ শতাংশের বেশি শেয়ার রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে। এই ছয় কোম্পানির মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন, আইসিবি ব্যাংক, জুট স্পিনার্স, সান লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং তাল্লু স্পিনিং মিলস লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, এই ছয় কোম্পানির মধ্যে প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে সবচেয়ে বেশি মালিকানা রয়েছে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেডে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জেনারেশন নেক্সট এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ মালিকানা রয়েছে আইসিবি ব্যাংক লিমিটেডের।

বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি লিমিটেড: কোম্পানিটির মোট শেয়ার ১০ কোটি ০৬ লাখ ৭৯ হাজার ৯৪৪টি। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি শেয়ার রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে। যার পরিমাণ ৪১.১৬ শতাংশ। স্পন্সর পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৪০.৫৫ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ১৮.২৯ শতাংশ।

সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৬ টাকা ৩০ পয়সা। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী কোম্পানিটির পিই রেশিও অবস্থান করছে নেগেটিভ।

জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন লিমিটেড: কোম্পানিটির মোট শেয়ার ৪৯ কোটি ৪৯ লাখ ৭৪ হাজার ৫৫৬টি। এরমধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৩.৭৪ শতাংশ। স্পন্সর পরিচালকদের কাছে রয়েছে ১৩.৮২ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৬২.৪৪ শতাংশ।

সর্বশেষ প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর’২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ০৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান ছিলো ০৮পয়সা।

সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৫ টাকা ৯০ পয়সা। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী কোম্পানিটির পিই রেশিও অবস্থান করছে নেগেটিভ।

আইসিবি ব্যাংক: কোম্পানিটির মোট শেয়ার ৬৬ কোটি ৪৭ লাখ ০২ হাজার ৩০০টি। এরমধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২২.৩০ শতাংশ। স্পন্সর পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৫২.৭৬ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৪.৭৭ শতাংশ।

সর্বশেষ তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর’২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৪৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান ছিলো ১৫ পয়সা।

সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৫ টাকা ১০ পয়সা। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী কোম্পানিটির পিই রেশিও অবস্থান করছে নেগেটিভ।

জুট স্পিনার্স: কোম্পানিটির মোট শেয়ার ১৭ লাখ। এরমধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৩.২০ শতাংশ। স্পন্সর পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৩৯.৮২ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৩৬.৯৮ শতাংশ।

সর্বশেষ প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর’২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ১০ টাকা ৮৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ১১ টাকা ১৬ পয়সা।

সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২০ টাকা ৫০ পয়সা। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী কোম্পানিটির পিই রেশিও অবস্থান করছে নেগেটিভ।

সান লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড: কোম্পানিটির মোট শেয়ার ৩ কোটি ৫৭ লাখ ৬০ হাজার ৬৯০টি। এরমধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৫.০৬ শতাংশ। স্পন্সর পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৪০.৮০ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৩৪.১৪ শতাংশ।

সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৩৬ টাকা ৮০ পয়সা। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী কোম্পানিটির পিই রেশিও অবস্থান করছে নেগেটিভ।

তাল্লু স্পিনিং মিলস লিমিটেড: কোম্পানিটির মোট শেয়ার ৮ কোটি ৯৩ লাখ ৩৫ হাজার ৩৭৫টি। এরমধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২০.২৫ শতাংশ। স্পন্সর পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৩০ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৪৯.৫৯ শতাংশ।

সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ টাকা ৭০ পয়সা। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী কোম্পানিটির পিই রেশিও অবস্থান করছে নেগেটিভ।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৫ জানুয়ারি ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here