বিদায়ী সপ্তাহে লেনদেনের সাথে বাজার মূলধনও কমেছে পুঁজিবাজারে

0
88

বিদায়ী সপ্তাহে পুঁজিবাজারে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তিন কার্যদিবসই পতন হয়েছে। আর দুই কার্যদিবস সামান্য উত্থান হয়েছে। সপ্তাহ শেষে দেখা গেছে সূচক এবং লেনদেন কমেছে। একই সাথে সপ্তাহটিতে পাঁচ হাজার ৮২৩ কোটি টাকার বেশি বাজার মূলধন কমেছে।

জানা গেছে, সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ৬৬ হাজার ৭৫২ কোটি ৯৫ লাখ ৮৯ হাজার ৫০৪ টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৫ লাখ ৬০ হাজার ৯২৯ কোটি ৮৭ লাখ ৯৭ হাজার ০৬৭ টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে বিনিয়োগকারীরা পাঁচ হাজার ৮২৩ কোটি ৭ লাখ ৯২ হাজার ৪৩৭ টাকা হারিয়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) পাঁচ হাজার ৯৬৭ কোটি ১২ লাখ ৯৭ হাজার ৮৪৫ টাকার লেনদেন হয়েছে। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ছয় হাজার ৬১৭ কোটি ৭৯ লাখ ২০ হাজার ৬৮৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ৬৫০ কোটি ৬৬ লাখ ২২ হাজার ৮৪১ টাকা বা ১০ শতাংশ কমেছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৯৪.৫৯ পয়েন্ট বা ১.৩৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ছয় হাজার ৯৯১.৩৬ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৯.৪৭ পয়েন্ট বা ০.৬২ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২৩.৬৪ পয়েন্ট বা ০.৯১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৫০৮.১৪ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ৫৭৩.৮৫ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৮৬টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৭টির বা ২২.৫৪ শতাংশের, কমেছে ২৮০টির বা ৭২.৫৪ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির বা ৪.৯২ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২১৮ কোটি ৬ লাখ ৭ হাজার ৩৭০ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২৮৪ কোটি ৭৬ লাখ ৭৩ হাজার ৬৪৪ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ৬৬ কোটি ৭০ লাখ ৬৫ হাজার ৬৪৪ টাকা বা ২৩ শতাংশ কমেছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩০৯.৮৩ পয়েন্ট বা ১.৪৯ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ৪৫৯.৫৬ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ১৮৯.০৪ পয়েন্ট বা ১.৫১ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ২৭০.৮৬ পয়েন্ট বা ১.৮৪ শতাংশ, সিএসই-৫০ সূচক ১৮.২৫ পয়েন্ট বা ১.১৯ শতাংশ এবং সিএসআই ৯.৭৬ পয়েন্ট বা ০.৭৬ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২ হাজার ২৮৩.৪৫ পয়েন্টে, ১৪ হাজার ৪৩৭.৫৫ পয়েন্টে, এক হাজার ৫১১.০৯ পয়েন্টে এবং সিএসআই এক হাজার ২৭৯.২৬ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৫৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৮৭টির বা ২৪.৪৪ শতাংশের দর বেড়েছে, ২৬১টির বা ৭৩.৩১ শতাংশের কমেছে এবং ৮টির বা ২.২৫ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here