লেনদেন কমেছে ২ হাজার কোটি টাকা

0
73

বিদায়ী সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবসে শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। সূচকের সাথে টাকার পরিমাণে লেনদেন এবং বেশিরভাগ সিকিউরিটিজের শেয়ার ও ইউনিট দরও কমেছে। আর সপ্তাহটিতে বাজার মূলধন আড়াই হাজার কোটি টাকা কমেছে।

বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ২২ হাজার ৬৬৪ কোটি ৩৫ লাখ ৩৪ হাজার ২৩১ টাকায়।। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৫ লাখ ২০ হাজার ১২৬ কোটি ৫৬ লাখ ৮১ হাজার ৯২১ টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন দুই হাজার ৫৩৭ কোটি ৭৮ লাখ ৫২ হাজার ৩১০ টাকা কমেছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৭ হাজার ৮২ কোটি ৯২ লাখ ৯৯ হাজার ৭২৪ টাকার লেনদেন হয়েছে। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৯ হাজার ৯১ কোটি ২২ লাখ ৬১ হাজার ৬৩৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেনে দুই হাজার ০০৮ কোটি ২৯ লাখ ৬১ হাজার ৮৯২ টাকা কম হয়েছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪৫ পয়েন্ট বা ০.৬৯ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৫১৫.০১ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১১.৬৯ পয়েন্ট বা ০.৮১ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২৯.৮২ পয়েন্ট বা ১.২৫ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৪২৯.৫৬ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ৩৪৬.৩৫ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৮৮টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৬টির বা ২৪.৭৫ শতাংশের, কমেছে ১৮৩টির বা ৪৭.১৬ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১০৯টির বা ২৮.০৯ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১৪৪ কোটি ২৩ লাখ ৪১ হাজার ৯৪২ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১৬০ কোটি ০৭ লাখ ৭৪ হাজার ৭৫৪ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ১৫ কোটি ৮৪ লাখ ৩২ হাজার ৮১২ টাকা কমেছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৩৫.৩০ পয়েন্ট বা ০.৭০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৯ হাজার ১৪১.০২ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ৮২.০৭ পয়েন্ট বা ০.৭১ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ১৯৮.২৫ পয়েন্ট বা ১.৪৪ শতাংশ, সিএসই-৫০ সূচক ১৫.৫৬ পয়েন্ট বা ১.১০ শতাংশ এবং সিএসআই সূচক ১৭.৪২ পয়েন্ট বা ১.৩৯ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১ হাজার ৪৭২.৮১ পয়েন্টে, ১৩ হাজার ৫১১.৯৬ পয়েন্টে, এক হাজার ৩৯৮.৫৬ পয়েন্টে এবং এক হাজার ২৩৩.৫৮ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৩৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৯১টির বা ২৭.২৫ শতাংশের দর বেড়েছে, ১৫৮টির বা ৪৭.৩১ শতাংশের কমেছে এবং ৮৫টির বা ২০.৪৪ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

ট্রেডার বাংলাদেশ, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here